Thursday, 15 November 2012

কেন মানুষ আত্মহত্যা করে?

কেন মানুষ আত্মহত্যা করে?
আত্মহত্যার প্রচেষ্টার পরিষকার প্রমাণ যে, একজন মানুষের জীবনে কিছু একটা ভয়াবহভাবে ভুল হয়ে যাচ্ছে। তাতে লোকটির বংশ বা বয়স যাই হোক না কেন, কতটা সে ধনী বা গরিব। এটা সত্য যে, বেশির ভাগ আত্মহত্যাকারী লোকের একটা মানসিক অথবা আবেগী বৈকল্য থাকে। বেশির ভাগ সাধারণ বৈকল্য হয়ে থাকে ডিপ্রেশন। ৩০ থেকে ৭০% আত্মহত্যাকারী ভিকটিম ভুগে থাকে মেজর ডিপ্রেশনে অথবা বাইপোলার বৈকল্যে।

কেউ আত্মহত্যার কথা বিবেচনা করলে তার জন্য হুঁশিয়ার সংকেত
নিম্নলিখিত লক্ষণসমূহের লোকেরা কখন আত্মহত্যা করবে বোঝা যায় না, কিন্তু এই সিগন্যালের অনেকগুলোর অর্থই হতে পারে সাহায্যের প্রয়োজন।



মৌখিক আত্মহত্যার হুমকি, যেমন তুমি আমাকে ছাড়াই ভালো থাকবে। অথবা হতে পারে আমি আর তোমার পাশে থাকব না।
আশাহীনতা ও সাহায্যহীনতার কথা বলা
বিগত দিনের আত্মহত্যার প্রচেষ্টা
ডেয়ারিং অথবা ঝুঁকিপূর্ণ আচরণ
ব্যক্তিত্বের পরিবর্তন
ডিপ্রেশন
মূল্যবান সম্পদ অন্যকে বিলিয়ে দেয়া
ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় উৎসাহের অভাব

মনে রাখবেন
১০ জনের মধ্যে ৮ জন আত্মহত্যাকারী লোক তাদের মতলবের কিছু চিহ্ন পূর্বেই প্রকাশ করে। যেসব লোক আত্মহত্যার কথা বলে, আত্মহত্যা করবে বলে হুমকি দেয় অথবা সুইসাইড ক্রাইসিস সেন্টারে ফোন করে তাদের আত্মহত্যার সম্ভাবনা ৩০% বেশি ওদের চেয়ে যারা গড় আত্মহত্যা করতে চায়।

যদি মনে করেন কেউ আত্মহত্যা করবে তখন কী করবেন

আপনার সহজ বোধকে বিশ্বাস করুন যে লোকটি অসুবিধার মধ্যে আছে।
লোকটির সাথে কথা বলুন, আপনার ভাবনা নিয়ে আদান-প্রদানের মধ্যে তার কথা শোনাও আছে।
সরাসরি তাকে জিজ্ঞেস করুন বিচার-বিবেচনা ছাড়াই। ঠিক করুন যদি লোকটির একটি বিশেষ পরিকল্পনা থাকে আত্মহত্যা করার জন্য। পরিকল্পনা যত বিস্তারিত হবে ঝুঁকিটা তত বেশি হবে।
লোকটি বাধা দিলেও পেশাদারি ডাক্তারের সাহায্য নিন।
লোকটিকে একা ছাড়বেন না।
কোনো কিছু গোপন করার প্রতিশ্রুতি দেবেন না।
কোনো আঘাত দেয়ার মতো বা বিচার করার মতো কাজ করবেন না।
আপনি নিজে লোকটিকে কোনো পরামর্শ দেবেন না,
বরং একজন সাইকোথেরাপিস্টের শরনাপন্ন হোন। 
মনোজগতের সৌজন্যে

No comments:

Post a comment