Monday, 19 November 2012

মানসিক সুস্থতা যাচাইকরণ



শারীরিক সুস্থতার মতো মানসিক সুস্থতাও অপরিহার্য। উন্নত দেশগুলোর জনগণ সাধারণ মানসিক উদ্বেগ-উৎকন্ঠাতেই মনোরোগ বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হয় এবং পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করে থাকে। কিন্তু আমাদের দেশে মানসিক অসুস্থতা বরাবরই একটি উপেক্ষিত বিষয়। শিক্ষিত-অশিক্ষিত, ধনী-দরীদ্র নির্বিশেষে অনেকে মানসিক রোগীদেরকে এখনো জিন-পরীর প্রভাবগ্রস্থ কিংবা পাগল হিসেবে গণ্য করেন এবং জাড়ফুঁক, তাবিজ-কবজ, পানি পড়া জাতীয় তথাকথিত চিকিৎসার শরণাপন্ন হন। এতে রোগ নিরাময় না হয়ে জটিল আকার ধারণ করে। এক পর্যায়ে
মানসিক রোগী সামাজিক উৎপাতের উৎপাতের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। অথচ আমরা একটু মনোযোগী হলে শুরুতেই অনেক মানসিক রোগী সুস্থতা অর্জন করতে পারে। আপাতদৃষ্টিতে একজন সুস্থ মানুষেরও মানসিক সমস্যা থাকতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের Dr. William C. Menninger সাধারণ মানুষের মানসিক অবস্থা যাচাই এবং সাধারণ মানসিক রোগ শনাক্ত করার জন্য নিচের প্রশ্নমালা তৈরী করেছেন। এ প্রশ্নগুলোর মাধ্যমে আপনিও যাচাই করতে পারেন আপনি মানসিকভাবে সুস্থ কি না?

১। আপনি কি সবসময়ই বিষাদ ভারাক্রান্ত থাকেন ?
২। আপনি কি অজানা কারণে কাজে মনোসংযোগে অসমর্থ ?
৩। আপনি কি যুক্তিসঙ্গত কোন কারণ ছাড়াই অব্যাহতভাবে নিজেকে অসুখী ভাবছেন ?
৪। আপনি কি খুব সহজে এবং প্রায়ই মেজাজ ধরে রাখতে অক্ষম ?
৫। আপনি কি নিয়মিতভাবে অনিদ্রায় ভোগেন ?
৬। আপনার মেজাজ কি খুব বেশী ওঠানামা করে, যেমন হঠাৎ করেই উল্রোসিত বোধ করা বা খুব দ্রুতই বিষাদগ্রস্থ হয়ে পড়া, যা আপনাকে স্বাভাবিক কাজকর্ম সম্পাদনে অসমর্থ করে তোলে ?
৭। আপনি কি অব্যাহতভাবে মানুষের সাথে মেলামেশা করতে অপছন্দ করছেন ?
৮। আপনার দৈনন্দিন রুটিন কাজকর্মে কোন বিঘ্ন সৃষ্টি হলে আপনি কি মাত্রাতিরিক্ত মানসিক চাপ বোধ করেন ?
৯। আপনার সন্তানেরা কি স্থায়ীভাবে আপনার মন:পীড়নের কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে ?
১০। আপনি কি আজকাল অন্যের কাছে স্থায়ীভাবে অপছন্দনীয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে বিবেচিত হচ্ছেন ?
১১। আপনি কি সত্যিকার কোন কারণ ছাড়াই ভীতসন্ত্রস্ত থাকেন ?
১২। আপনি কি মনে করেন আপনিই সব সময় সঠিক এবং অন্যরা বেঠিক ?
১৩। আপনি কি বিভিন্ন ধরনের ব্যথায় ভোগেন যার কোন শারীরিক কারণ অনেক চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলেও তারা খুঁজে পাননি ?

Dr. William C. Meenninger- এর মতে, ওপরের প্রশ্নমালার যে কোন একটি প্রশ্নের উত্তরও যদি নিশ্চিতভাবে ' হ্যাঁ ' হয়, তবে ধরে নিতে হবে, আপনার মানসিক সমস্যা রয়েছে এবং আপনার উচিত একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হওয়া। 

কামরুজ্জামান মিহির



No comments:

Post a comment