Tuesday, 5 May 2015

বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মানসিক রোগ বিভাগ






বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিভিন্ন মানসিক রোগীকে নিয়মিতভাবে সেবা দেয় মনোরোগ বিভাগ। হাসপাতালের মনোরোগ বিভাগের সেবাসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য নিচে তুলে ধরা হলো:
পরিচিতি
শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ বরিশাল জেলায় অবস্থিত। এটি ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। বরিশাল শহরের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত এ প্রতিষ্ঠানটি বিশাল জায়গা জুড়ে নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে কলেজের হাসপাতালে ১২শ রোগীর
জন্য বেডের ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে প্রতি বছর ১৮০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হন।

লোকবল
হাসপাতালটির মানসিক রোগ বিভাগে চাকুরিরত আছেন ৬ জন। তাদের একজন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। নার্স কাজ করেন ৫ জন।

পদ খালি
এই কলেজের মানসিক রোগ বিভাগের সহকারী ও সহযোগী অধ্যাপকের দুইটি পদ খালি আছে। এছাড়াও দুজন সহকারী রেজিস্টারের পদ খালি আছে।

অন্তর্বিভাগ
শেরে-ই-বাংলা একে ফজলুল হক মেডিকেল কলেজের মানসিক রোগ বিভাগে অন্তর্বিভাগে নারীদের ও পুরুষদের জন্য যথাক্রমে ৫ ও ১০ টি নিয়ে মোট ১৫টি বেডের ব্যবস্থা আছে। ৩০ টাকা দিয়ে অন্তর্বিভাগে মানসিক রোগী ভর্তি করা হয়।
বহির্বিভাগ
বহির্বিভাগে ১০ টাকা টিকেট ফিতে রোগী দেখা হয়। শুক্রবার সরকারি ছুটি ছাড়া বাকি ছয়দিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলে রোগী দেখার কার্যক্রম। প্রতিদিন গড়ে ৫০ থেকে ৬০ জন আসেন এখানে মানসিক চিকিৎসা সেবা পেতে।
জরুরি সেবা
এ বিভাগে জরুরি সেবা চালু আছে।
সাইকোথেরাপি (কাউন্সেলিং)
মানসিক রোগীদের স্বাস্থ্য সেবার হিসেবে এখানে কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করা হয়। বিভাগের শিক্ষক এ সেবা দিয়ে থাকেন। বিভিন্ন বিভাগ থেকে রেফার্ড রোগীদেরও শিক্ষকরা কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করে থাকেন।
শিক্ষা কার্যক্রম
পাঁচ বৎসর মেয়াদী শিক্ষা কার্যক্রম সাফল্যজনকভাবে শেষ করে শিক্ষার্থীরা চিকিৎসাশাস্ত্রে এমবিবিএস স্নাতক ডিগ্রি প্রাপ্ত হয়। এ কলেজে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে বিভিন্ন কোর্স রয়েছে। কিন্তু এখানে অর্থাৎ মানসিক রোগ বিভাগে কোনো পোস্ট গ্রেজুয়েট ডিগ্রি চালু নাই।
এছাড়াও বিভাগটি মাঝে মাঝে বিভিন্ন সেমিনারের আয়োজন করে থাকে এই বিভাগ। এবং বিভিন্ন সময় কনফারেন্স ও কর্মশালার আয়োজন করে থাকে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় বা মেডিকেল থেকে আগত শিক্ষার্থীদেরও ট্রেনিং করানো হয়ে থাকে। গবেষণার কাজ ব্যক্তিগতভাবে করা হয়

No comments:

Post a comment