Wednesday, 7 September 2016

মানসিক কারণেও শরীরে ব্যথা হতে পারে



ডাক্তার সিসান ব্যাবেল একজন মনস্তাত্বিক এবং দুশ্চিন্তাজনীত মানসিক আঘাতের ওপর বিশেষজ্ঞ। তিনি মনে করেন যে, আমাদের মানসিক অনুভূতিগুলো শারীরিক অনুভুতিকে প্রভাবিত করে। তিনি বলেন, ‘গবেষণায় দেখা যায় যে, শরীরের দীর্ঘস্থায়ী ব্যথা শুধুমাত্র শারীরিক ক্ষত কারণে হয় না, মানসিক পীড়নও এর জন্য দায়ী। শারীরিক ব্যথাগুলো মানুষকে সেই সব মানসিক অনুভূতির কথা মনে করিয়ে দেয় যেগুলো অসম্পন্ন রয়েছে।’
আসুন জেনে নিই, দীর্ঘদিন মানসিক চাপে থাকলে শরীরের কোন জায়গার ব্যাথা হতে পারে।
মাথা
মাথা ব্যথা বা মাইগ্রেন হতে পারে আপনার প্রতিদিনকার স্ট্রেস থেকে। যদি কারো দীর্ঘস্থায়ী মাথা ব্যথা হয় তাহলে তার নিজের জন্য একটু সময় দেয়া উচিত। তবে একদিন বা দুই দিন নয়। প্রতিদিন সময় নিয়ে নিজের মানসিক চাপগুলোকে অপসরণ করা উচিত।
ঘাড়
দীর্ঘদিন ধরে ঘাড়ে ব্যথা কোনো অবহেলার মতো বিষয় নয়।
কাঁধ
অতিরিক্ত মানসিক বোঝা বহনের ফলে কাঁধের ব্যথা হতে পারে। কাঁধের ব্যথা অনেক খানি কোনো
কিছু কাঁধে নিয়ে বয়ে বেড়ানোর মতো। চেষ্টা করুন মানসিক সমস্যাগুলোর সমাধান করার এবং পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে আপনার সমস্যাগুলো তাদের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিন।
মেরুদন্ডের ব্যথা
মানসিক চাপের কারণে মেরুদন্ডে ব্যথা হতে পারে।
কনুই
নমনীয়তার অভাবে কনুইতে ব্যথা অনুভুব হতে পারে। মানুষের জীবনে দৈনন্দিন যে পরিমাণ নমনীয়তা দরকার তা না করলে কনুইয়ের ব্যথা হয়। বেশি বেশি করে হাত পা নাড়ানোর চেষ্টা করুন।
হাত
নিতম্ব
নিজের প্রয়োজন মতো নাড়াচাড়া এবং পরিবর্তন করুন।
হাঁটু
হাত, পায়ের মাসল
গোড়ালি
পায়ের পাতা
দুশ্চিন্তার কারণে পায়ের পাতা ব্যথা হয়। দুশ্চিন্তা থেকে বেরিয়ে আসা খুবই কষ্টকর, তবে অনেকে এই কাজটি করে থাকেন। নিজেকে দুশ্চিন্তা মুক্ত রাখতে আনন্দের মধ্যে থাকুন।
শরীরের দীর্ঘস্থায়ী ব্যথা নিয়ে অবহেলা করবেন না। এগুলো আপনার মানসিক চাপ বা সমস্যার ফলাফল। তাই দেরি না করে শারীরিক চিকিৎসার পাশাপাশি মানসিক ডাক্তার দেখান বা সাইকোথেরাপিস্টের সাথেও কথা বলতে পারেন ।
সুত্রঃ বাস্তব অভিজ্ঞতা ও ইন্টারনেট
https://www.facebook.com/Psychobd/

No comments:

Post a comment